একটু অবহেলাই আলাদা করেছে তোমায় আমায়

একটু অবহেলাই আলাদা করেছে তোমায় আমায়
মোঃ লাভলু হাওলাদার
আমি তোমাকে ভালোবাসি এই কথাটা বলতে যতোটা না সময় লাগে তার থেকেও বেশি সময় বা কষ্টে স্বযত্নে গড়তে হয় এই আমি তোমাকে ভালোবাসি এই ছোট্ট বাড়িটির ভীত গড়তে,দুজনেরি ইচ্ছে সত্ত্বে তিল তিল করে গড়ে তোলা এই ছোট্ট বাড়িটিতে প্রথম থেকেই অঙ্গিকার বদ্ধ থাকে কখনও ছেড়ে যাবে না তো তুমি আমায় কখনও বলবে না তো আমি আর সয্য করতে পারছি না তোমায় please আমায় মুক্তি দাও,কখনও বলবে না তো ভালো থেকো তুমি,এর পর থেকেই সুরু হয় আবেগী অনুভুতির কথা,এর পর থেকেই সুরু ঘন্টার পর ঘন্টা চলে আসা মিষ্টি মিষ্টি ঘুনশুটি ফোন আলাপ,কিছু আবেগের আদান প্রদান,কিছু দিন স্বম্পর্ক এগোতেই আমাদের মনে ইচ্ছে যাগে চলো না আমরা একটু দেখা করি,দুজনের ইচ্ছে তেই দেখা হয় সাড়া রাত বসে দুজনেই ভাবতে ভাবতে ছেলেটি একটি যায়গা ঠিক করে, আর বলে কাল আমরা দেখা করছি,আর মেয়েটি অতি আবেগ নিয়ে জিগাসা করে বলো না কোথায় দেখা করবো,আর ঠিক তখনি ছেলেটি আবেগী অনুভুতির থেকে বলে যেখানে আকাশ মাটিকে ছুয়েছে সেখানে,আর মেয়েটি সাথে সাথে যাব দেয় আর যেখানে বয়ে চলা নদীর ধার ঘেশে দখিনা বাতাসে বেড়ে উঠেছে হাজারো কাশফুল,ছেলেটি যবাবে বলে হ্যাঁ ঠিক সেখানেই হবে দেখা,আর তুমি আসবে লাল টকটকে একটা শাড়ি পরে হাতে মেহেদীর লাল রঙে রঞ্জিত থাকবে আমার ভালোবাসা,আর এরকম ভাবে এগোতে থাকা ভালোবাসা কে এক মুহূর্তে নষ্ট করে দিতে পারে কালবৈশাখী নামে একটু অবহেলা, হ্যাঁ একটু অবহেলাই পারে অনেক কষ্টে এক সাথে থাকার অঙ্গিকার করা দুটি হাতকে আলাদা করে দিতে।।।

Post a Comment

0 Comments