রিভিউ- ভালোবাসার গল্প

ভালোবাসার গল্প গুলো মাঝে মাঝে পৃথিবীর সবথেকে নিষ্ঠুরতম গল্প গুলোকেও হার মানায়,সব ভালোবাসার গল্পেরই মিলন সন্ধি ঘটেনা,ধূ ধূ মরুভূমিতে একটি সূই খোঁজাও অনেক সময় সহজ হয়ে যায় কিছু কিছু ভালোবাসার গল্পের ইতির রহস্যভেদ করতে গেলে।

ভালোবাসা যেমন সুন্দর,তেমনি হ্যামলকের বিষের মতোও বিষাক্ত,অনেক পবিত্র ভালোবাসাই এই সমাজে নিষিদ্ধ।

কিন্তু তারপরও এই নিষিদ্ধ পবিত্র ভালোবাসার জন্যই মরে যায় মানুষ,আবার কেউ কেউ জীবন দিয়ে অমর করে যায় তার ভালোবাসা কে।

ভালোবাসার কোনো প্রকৃত সংজ্ঞা আজ পর্যন্ত আবিষ্কার করতে পারেনি কবি সাহিত্যিক কিংবা প্রেমিক / প্রেমিকারা,এই একটি বিষয়ের জন্যই হয়তো মানুষ স্বেচ্ছায় জীবন দিতে কুন্ঠাবোধ করেনা।

দ্বিতীয় বারের জন্য ভাবেনা,কোথাও যাবে,কিভাবে যাবে,কেন যাবে,কেমন থাকবে? এসব প্রশ্নের উত্তর খুঁজে হয়তো ভালোবাসা হয়না,বিনিময় প্রথা হয়তো শুধু বানিজ্যিক দের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য, ভালোবাসার ক্ষেত্রে নয়।

ভালোবাসার গল্প গুলোর পাতা উল্টালেও হয়তো যোজন যোজন শতাব্দী কেটে যাবে,আবিষ্কার করা যাবেনা ভালোবাসার রহস্য, মানুষের মস্তিষ্কের কোন থ্যালামাসের রাসায়নিক বিক্রিয়ার ফলে এই ভালোবাসার জন্ম হয় এর জন্য হয়তো কয়েক হাজার রসায়নবিদ নিয়োগ দিলেও উদঘাটন করতে পারবে না এর রহস্য।

তেমনি এক (ভালোবাসার গল্প) নাটকে অভিনয় করেছে,তাহসান খান, এবং তাসনুভা তিশা, কলেজ প্রফেসরের প্রেমে হাবুডুবু খাওয়া টিনেজার তিশার জায়গায় হয়তো নিজেকে কল্পনা করবে অনেক ষোড়শী কন্যারা,সুইট সিক্সটিনের সময় টাতে কতো রকম ভালোবাসার উদয় হয়ে হৃদয় নামক বাক্সটিতে এই নাটকে তা প্রজ্জল্যমান।

ভালোবাসার কোনো জন্মস্থান নেই,কোথায়, কখন,কিভাবে এই অনুভূতির জন্ম, এটা হয়তো স্বয়ং ভালোবাসা নিজেই জানেনা,তাসনুভা তিশা তাহসানের প্রেমে পড়ার আগে হয়তো একবারও ভাবেনি,এমন পবিত্র ভালোবাসা এি সমাজে নিষিদ্ধ, এমন ভালোবাসার স্থান কখনো কখনো এমন সভ্য সমাজে হয়না,এমন ভালোবাসা গুলো কে মাটি চাপা দিতে হয়,সে বুঝবেই বা কেন? এই বয়সে এতো কিছু ভাবার সময় কই,নিজের ভালোলাগা,ভালোবাসা টাই সবচেয়ে বেশী প্রাধান্য পায়।

পুরো নাটক জুড়ে,খুনসুটি,ছোটো ছোটো ভালো লাগার মূহুর্ত,সাথে অসাধারণ মিউজিক,সব কিছু মিলিয়ে সত্যিই একটা ভালোবাসার গল্প।

তবে পরিচালককে ধন্যবাদ দিবোনা,শেষের দিকে এমন ভাবে চোখ দিয়ে পানি আনার কারনে অপরাধীর কাঠগড়ায় দাঁড় করাবো আপনাকে,শেষের জন্য একদমই প্রস্তুত ছিলাম না 😭😭😭😭।
কপি ফ্রমঃ এমডি নুর উন্নবি

Post a Comment

0 Comments